• বরিশাল
  • »
  • উজিরপুরে শীতকালীন সবজি চাষে বাম্পার ফলন,চাষীদের মুখে হাসি

উজিরপুরে শীতকালীন সবজি চাষে বাম্পার ফলন,চাষীদের মুখে হাসি

প্রকাশ : জানুয়ারি ২০, ২০১৯, ৬:১৮ অপরাহ্ণ

সংবাদ প্রতিদিন#
বরিশালের উজিরপুর উপজেলায় শীতকালীন সবজি চাষে লাভবান হচ্ছেন কৃষকরা। কম খরচে ভালো ফলন পাওয়ায় ও বাজারে সবজির দাম ভালো থাকায় সবজি চাষে কৃষকরা বেশী আগ্রহী হয়েছেন। সবজি চাষের উপযোগী মাটিতে সবজি চাষে আগ্রহী হচ্ছেন কৃষকরা। ক্ষেতের পাশাপাশি অনেকেই বাড়ির আঙিনায়ও শীতকালীন সবজি চাষ করেছেন।

উপজেলার গুঠিয়া, বামরাইল, জল্লা ও হারতা ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রাম ঘুরে মাঠজুড়ে দেখা গেছে শীতকালীন সবজি ফুলকপি, বাঁধাকপি, শালগম, শিম, মিষ্টি কুমড়া, টমেটো, পালং ও লাল শাকসহ নানা জাতের সবজি। তবে শীতকালীন এসব সবজিতে পোঁকা বা রোগের আক্রমণ হলে স্থানীয় কৃষি বিভাগ থেকে প্রয়োজনীয় পরামর্শ ও সহযোগিতা পাচ্ছেন না বলে অভিযোগ কৃষকদের। যার কারনে সবজি চাষে অনেক কৃষক ক্ষতিগ্রস্থ হয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। তারপরও ক্ষতি পুষিয়ে নিতে তারা সবজি চাষ করতে রয়েছেন ব্যস্ত।

উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের তথ্য মতে, চলতি মৌসুমে উপজেলার ৯টি ইউনিয়নে শীতকালীন সবজি চাষের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছিল ৮ শত ৪০ হেক্টর জমিতে ১৭ হাজার ৮’শ মেট্রিক টন। কিন্তু লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে চাষ হয়েছে ৮ শত ৯০ হেক্টর জমিতে। তবে আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে মৌসুম শেষের আগেই সবজি চাষের লক্ষ্যমাত্রা অতিক্রমের আশা করছে কৃষি বিভাগ।

উপজেলার গুঠিয়া ইউনিয়নের ডহরপাড়া গ্রামের সবজি চাষি মনির হোসেন জানান, তিনি প্রতি বছর প্রায় ১ একর জমিতে সকল ধরনের সবজি চাষ করেন। এ বছর দেড় একর জমিতে বাঁধাকপি, ফুলকপি, শিম, শালগম, পালং শাক চাষ করেছেন। কীটনাশক প্রয়োগ না করায় উৎপাদিত এসব সবজির চাহিদাও রয়েছে বেশ। তবে পোঁকা ও রোগের আক্রমনে অনেক সবজি নষ্ট হয়েছে।

তিনি আরও জানান, স্থানীয় কৃষি বিভাগের কর্মকর্তারা আমাদের কোনো ধরনের পরামর্শ বা সহযোগীতা না করায় আমাদের সবচেয়ে বেশি ক্ষতির সম্মুখিন হতে হয়। তারা নিয়মিত ফসলি জমিগুলো পরিদর্শন করে আমাদের সঠিক পরামর্শ দিলে উৎপাদন আরো বৃদ্ধি পাবে।

একই গ্রামের সবজি চাষি মোঃ ফিরোজ হাওলাদার জানান, শীতকালীন সবজি চাষে খরচ কম লাগে, এতে সহজেই লাভবান হওয়া যায়। এবার তিনি ৫০ শতক জমিতে শীতকালীন সবজি চাষ করেছেন এবং ফলনও ভালো হচ্ছে। বামরাইল ইউনিয়নের দক্ষিন মোড়াকাঠী গ্রামের শীতকালীন সবজি সীম চাষী নুরুল হক রাঢ়ী বলেন, সাত থেকে আট বছর ধরে তিনি সীম চাষ করছেন। এ বছরও তিনি ৬০ শতাংশ জমিতে সীমের চাষ করছেন।

স্থানীয় কৃষি বিভাগের সার্বিক সহযোগিতায় মৌসুম শেষের আগেই তিনি সীম বিক্রি করে প্রায় লক্ষাধিক টাকা উপাজর্ন করেছেন। আরও ৫০ হাজার টাকার সীম তিনি বিক্রি করতে পারবেন। কালিহাতা গ্রামের টমেটো ও লাউ চাষী শেখ সালাম বলেন, এ বছর তিনি প্রায় দেড় একর জমিতে লাউ চাষ করেছেন। বাম্পার ফলন হওয়ায় মৌসুম শেষ না হতেই এরমধ্যে লাউ বিক্রি করে তিনি প্রায় এক লাখ বিশ হাজার টাকা উপার্জন করেছেন। পাশাপাশি চাষী সালাম আরও ২৫ শতাংশ জমিতে টমেটো চাষ করেছেন। আশা করছেন তাতেও ভালো ফলন হবে।

উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপ-সহকারী কর্মকর্তা মো: রফিকুল ইসলাম জানান, উপজেলায় নয়টি ইউনিয়নে ব্যাপকহারে সবজি চাষ হয়েছে। সেই সাথে উপজেলা কৃষি বিভাগের পক্ষ থেকে আমরাও কৃষকদের সাবির্ক সহযোগীতা ও পরামর্শ প্রদান করে আসছি। সবজির ফলন ও দাম ভালো পাওয়ায় সবজি চাষে কৃষকদের আগ্রহ আরও বাড়ছে। অনেক কৃষক সবজি চাষ করে সাবলম্বী হয়েছেন।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো: জাকির হোসেন তালুকদার জানান, কম খরচে শীতকালীন সবজি চাষ কৃষকরা অনেক লাভবান হন। তাই এ বছর লক্ষমাত্রার চেয়েও অধিক জমিতে সবজির আবাদ হয়েছে। এখানকার উৎপাদিত সবজি জেলার চাহিদা মিটিয়ে অন্যত্র সরবারহ করা হচ্ছে। আবার অনেক কৃষক নিজের জমির উৎপাদিত সবজি নিজেই বাজারে নিয়ে বিক্রি করছেন। এছাড়া কৃষি বিভাগ থেকে সবজি চাষে কৃষকদের সব ধরনের সহযোগিতা দেওয়া হচ্ছে। তবে কিছু ক্ষেত্রে মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের কারনে একটু ব্যতিক্রম ঘটেছে।

 



সর্বশেষ সংবাদ
ঝালকাঠিতে সাংবাদিকের নামে মিথ্যা ধর্ষন মামলার অভিযোগ রিফাত হত্যা মামলার আরেক আসামির আত্নসমর্পন রিফাত হত্যাকাণ্ড: আরও ৪ আসামির আত্মসমর্পণ পাথরঘাটায় কোস্টগার্ড ২০মণ হরিণের মাংস জব্দ-আটক ১ বরগুনায় জাতীয় জন্ম নিবন্ধন দিবস-২০১৯ পালন ওষুধ ছাড়াই পেট থেকে যেভাবে চিরতরে দূর করবেন গ্যাস রিফাত হত্যা: পলাতক ৮ আসামির মালামাল ক্রোকের নির্দেশ বরগুনার গর্ব, ইলিশের স্বর্গ, দেশে প্রথমবারের মত বরগুনায় ইলিশ উৎসব নেছারাবাদ(স্বরূপকাঠী) দুর্ধর্ষ ডাকাতির পর ডাকাত সর্দারসহ ৬ ডাকাত গ্রেফতার বরগুনার সংবাদ প্রতিদিন২৪ এর নিজস্ব প্রতিনিধি আল মামুন(রুবেল) সড়ক দূর্ঘটনায় মৃত্যু,সংবাদ প্রতিদিন২৪.কম এর গভীর শোক প্রকাশ