• slide news
  • »
  • “”একটি ছোট্ট ভুল এবং বাতিল হয়ে যাওয়া কুরবানী।””সকল কুরবানী দাতাদের জন্য অত্যন্ত জরুরী একটি বিষয়।

“”একটি ছোট্ট ভুল এবং বাতিল হয়ে যাওয়া কুরবানী।””সকল কুরবানী দাতাদের জন্য অত্যন্ত জরুরী একটি বিষয়।

প্রকাশ : আগস্ট ৬, ২০১৯, ৯:১৮ পূর্বাহ্ণ
#হত্যা_করে_গরু_কুরবানী_করছেন_না_তো?

মোঃ সাখাওয়াত হোসেন, ছারছিনা প্রতিনিধি  “”একটি ছোট্ট ভুল এবং বাতিল হয়ে যাওয়া কুরবানী।””♦সকল কুরবানী দাতাদের জন্য অত্যন্ত জরুরী একটি বিষয়।

১০-১৫ মিনিট সময় বাঁচাতে গিয়ে আমাদের করা, ছোট্ট একটি ভুলের কারনে সম্পূর্নরুপে বাতিল হয়ে যেতে পারে আমাদের অত্যন্ত যত্নের সাথে আদায়কৃত আল্লাহর মহান হুকুম কুরবানী।

★পশু জবেহ সম্পন্ন হবার পর, একটি ছোট তীক্ষ্ণ ছুড়ি দ্বারা জবেহের স্থানে খোঁচা দেয়ার একটা সিস্টেমের সাথে আমরা কমবেশি প্রায় সবাই পরিচিত, আমাদের অনেকেরই ধারনা এই কাজটার মাধ্যমে পশু দ্রুত মারা যায় এবং কষ্ট কম পায়।
এই ছোট্ট একটা ভুলই আমাদের কুরবানী বরবাদ করে দেবার জন্য যথেষ্ট।

★পশু জবেহ সহীহ হবার শর্ত হলো:-
পশুর অন্তত মূল তিনটি রগ কেটে দেয়া। আর মূল তিনটি রগ কেটে দিলে, রক্তক্ষরনের স্বাভাবিক ফলস্বরুপ পশুটি খুব দ্রুত মারা যায়।

★আমরা একটু অতিরিক্ত তাড়াহুড়ো করতে গিয়ে, পশুটার মেরুদন্ডের ভেতর তীক্ষ্ণ ছুড়ি ঢুকিয়ে “মেরুরজ্জু বা স্পাইনাল কর্ড” বিচ্ছিন্ন করে দ্রুত মেরে ফেলার চেষ্টা করি। স্পাইনাল কর্ড বিচ্ছিন্ন হয়ে গেলে পশুর মস্তিষ্ক, দেহ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় আর এর ফলে পশুটি হার্ট এটাক করে এবং মারা যায়।
অনেক সময় এভাবে দ্রুত পশুটিকে শান্ত করতে গিয়ে, কুরবানীর উদ্দেশ্য ব্যাহত হয় এবং পশুটি জবেহ না হয়ে, হত্যা হিসেবে পরিগনিত হয়।

★চিকিৎসা বিজ্ঞানের দৃষ্টিতেও এই পন্থা অত্যন্ত গর্হিত এবং বিপদজনক। স্পাইনাল কর্ড কেঁটে গেলে পশুর দেহের মাংশপেশিতেই রক্ত জমাট বেঁধে যায় এবং ফলশ্রুতিতে গোশত দূষিত হয়ে পরে। এই গোশত ভক্ষনে ক্যান্সার, এইচবিএএস, সহ অন্তত ১৮ প্রকার জটিল রোগ সৃষ্টি হতে পারে।

এতএব,
কুরবানী দাতা সকলের কাছে বিনীত অনুরোধ থাকবে, ১০-১৫ মিনিট সময় বাঁচাতে গিয়ে, দয়া করে আপনার কুরবানী কে বরবাদ হয়ে যাবার সুযোগ দিবেন না।

পর্ব  দুইঃ  প্রথম দশকে দিনে নফল রোযা ও রাতে ইবাদত করা: জিলহজ্ব মাসের চাঁদ উঠতে হওয়ার পর থেকে দশ তারিখ পর্যন্ত সম্ভব হলে দিনে নফল রোযা রাখা আর রাতের বেলা বেশী বেশী ইবাদত করা। যথা: নফল নামায, কুরআন তিলাওয়াত, তাসবীহ-তাহলীল, তাওবা-ইস্তিগফার ও রোনাজারী ইত্যাদি ইবাদতের মাধ্যমে রাত কাটানো। ফযীলত: ﺃﺧﺮﺝ ﺍﻹﻣﺎﻡ ﺍﻟﺘﺮﻣﺬﻱ ﺑﺎﻟﺴﻨﺪ ﺍﻟﻤﺘﺼﻞ ﻓﻲ ﺳﻨﻨﻪ ( ﺭﻗﻢ : 758 ) ﻋﻦ ﺃﺑﻲ ﻫﺮﻳﺮﺓ ﻋﻦ ﺍﻟﻨﺒﻲ ﺻﻠﻰ ﺍﻟﻠﻪ ﻋﻠﻴﻪ ﻭ ﺳﻠﻢ ﻗﺎﻝ ﻣﺎ ﻣﻦ ﺃﻳﺎﻡ ﺃﺣﺐ ﺇﻟﻰ ﺍﻟﻠﻪ ﺃﻥ ﻳﺘﻌﺒﺪ ﻟﻪ ﻓﻴﻬﺎ ﻣﻦ ﻋﺸﺮ ﺫﻱ ﺍﻟﺤﺠﺔ ﻳﻌﺪﻝ ﺻﻴﺎﻡ ﻛﻞ ﻳﻮﻡ ﻣﻨﻬﺎ ﺑﺼﻴﺎﻡ ﺳﻨﺔ ﻭﻗﻴﺎﻡ ﻛﻞ ﻟﻴﻠﺔ ﻣﻨﻬﺎ ﺑﻘﻴﺎﻡ ﻟﻴﻠﺔ ﺍﻟﻘﺪﺭ অনুবাদঃ হযরত আবু হুরায়রা রা. থেকে বর্ণিত রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন, জিলহজ্বের দশ দিনের ইবাদত আল্লাহর নিকট অন্য দিনের ইবাদতের তুলনায় বেশী প্রিয়, প্রত্যেক দিনের রোযা এক বছরের রোযার ন্যায় আর প্রত্যেক রাতের ইবাদত লাইলাতুল কদরের ইবাদতের ন্যায় । (তিরমিজী শরীফ, সিয়াম অধ্যায়,দশ দিনের আমল পরিচ্ছেদ, ১ম খন্ড,১৫৮ পৃষ্ঠা) ﺃﺧﺮﺝ ﺍﻹﻣﺎﻡ ﺍﻟﺒﺨﺎﺭﻱ ﺑﺎﻟﺴﻨﺪ ﺍﻟﻤﺘﺼﻞ ﻓﻲ ﺻﺤﻴﺤﻪ ( ﺭﻗﻢ : 926 ) ﻋﻦ ﺍﺑﻦ ﻋﺒﺎﺱ ﻋﻦ ﺍﻟﻨﺒﻲ ﺻﻠﻰ ﺍﻟﻠﻪ ﻋﻠﻴﻪ ﻭ ﺳﻠﻢ ﺃﻧﻪ ﻗﺎﻝ: ﻣﺎ ﺍﻟﻌﻤﻞ ﻓﻲ ﺃﻳﺎﻡ ﺍﻟﻌﺸﺮ ﺃﻓﻀﻞ ﻣﻦ ﺍﻟﻌﻤﻞ ﻓﻲ ﻫﺬﻩ . ﻗﺎﻟﻮﺍ ﻭﻻ ﺍﻟﺠﻬﺎﺩ ؟ ﻗﺎﻝ ﻭﻻ ﺍﻟﺠﻬﺎﺩ ﺇﻻ ﺭﺟﻞ ﺧﺮﺝ ﻳﺨﺎﻃﺮ ﺑﻨﻔﺴﻪ ﻭﻣﺎﻟﻪ ﻓﻠﻢ ﻳﺮﺟﻊ ﺑﺸﻲﺀ অনুবাদঃ হযরত আব্দুল্লাহ ইবনে আব্বাস রা. থেকে বর্ণিত। রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ইরশাদ করেছেন, যিলহজ্ব মাসের প্রথম দশকের নেক আমল আল্লাহর নিকট যত বেশী প্রিয় আর কোন দিনের আমল তাঁর নিকট তত প্রিয় নয়। সাহাবীগণ জিজ্ঞাসা করলেন, জিহাদ কি এই দশকের আমল থেকে উত্তম নয়? তিনি বললেন, না আল্লাহর পথে জিহাদও এই দশকের আমলের তুলনায় উত্তম নয়; তবে ঐ ব্যক্তির (জিহাদ এর চেয়ে উত্তম) যে নিজের জান ও মাল নিয়ে বেরিয়ে গেল এবং শেষে কিছুই ফিরে এলোনা (সম্পদও শেষ হল সেও শহীদ হয়ে গেল)। (বুখারী শরীফ, দুই ঈদ অধ্যায়, আইয়ামে তাশরীক পরিচ্ছেদ, ১ম খন্ড, ১৩২ পৃষ্ঠা) ২. চুল-নখ না কাটা: সকলের জন্য জিলহজ্বের চাঁদ উঠা থেকে কুরবানী করা পর্যন্ত চুল ও নখ না কাটা মুস্তাহাব। হাদীস: ﺃﺧﺮﺝ ﺍﻹﻣﺎﻡ ﻣﺴﻠﻢ ﺑﺎﻟﺴﻨﺪ ﺍﻟﻤﺘﺼﻞ ﻓﻲ ﺻﺤﻴﺤﻪ ( ﺭﻗﻢ : 5233 ) ﻋﻦ ﺃﻡ ﺳﻠﻤﺔ ﺗﺮﻓﻌﻪ ﻗﺎﻝ ﺇﺫﺍ ﺩﺧﻞ ﺍﻟﻌﺸﺮ ﻭﻋﻨﺪﻩ ﺃﺿﺤﻴﺔ ﻳﺮﻳﺪ ﺃﻥ ﻳﻀﺤﻰ ﻓﻼ ﻳﺄﺧﺬﻥ ﺷﻌﺮﺍ ﻭﻻ ﻳﻘﻠﻤﻦ ﻇﻔﺮﺍ অনুবাদঃ হযরত উম্মে সালামা রা. থেকে বর্ণিত,রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন,তোমাদের মধ্যে যারা কুরবানী করবে, তারা যেন [এই ১০ দিন] চুল ও নখ না কাটে। ( সহীহ মুসলিম, হাদীস নং-৫২৩৩ ,সুনানে ইবনে মাজাহ, কুরবানী অধ্যায়, যে কুরবানী করবে তার জন্য চুল-নখ না কাটার বর্ণনার অধ্যায়, পৃষ্ঠা-২২৭, ) ﺃﺧﺮﺝ ﺍﻹﻣﺎﻡ ﺍﺑﻮ ﺩﺍﻭﺩ ﺑﺎﻟﺴﻨﺪ ﺍﻟﻤﺘﺼﻞ ﻓﻲ ﺳﻨﻨﻪ ( ﺭﻗﻢ : 2789 ) ﻋﻦ ﻋﺒﺪ ﺍﻟﻠﻪ ﺑﻦ ﻋﻤﺮﻭ ﺑﻦ ﺍﻟﻌﺎﺹ ﺃﻥ ﺍﻟﻨﺒﻲ ﺻﻠﻰ ﺍﻟﻠﻪ ﻋﻠﻴﻪ ﻭ ﺳﻠﻢ ﻗﺎﻝ ” ﺃﻣﺮﺕ ﺑﻴﻮﻡ ﺍﻷﺿﺤﻰ ﻋﻴﺪﺍ ﺟﻌﻠﻪ ﺍﻟﻠﻪ ﻋﺰﻭﺟﻞ ﻟﻬﺬﻩ ﺍﻷﻣﺔ ” ﻗﺎﻝ ﺍﻟﺮﺟﻞ ﺃﺭﺃﻳﺖ ﺇﻥ ﻟﻢ ﺃﺟﺪ ﺇﻻ ﻣﻨﻴﺤﺔ ﺍﻟﻤﻨﻴﺤﺔ ﺷﺎﺓ ﺍﻟﻠﺒﻦ ﻭﻧﺤﻮﻫﺎ ﺗﻌﻄﻰ ﻟﻠﻔﻘﻴﺮ ﻟﻴﺤﻠﺐ ﻭﻳﺸﺮﺏ ﻟﺒﻨﻬﺎ ﺛﻢ ﻳﺮﺩﻫﺎ ﺃﻧﺜﻰ ﺃﻓﺄﺿﺤﻲ ﺑﻬﺎ ؟ ﻗﺎﻝ ” ﻻ ” ﻭﻟﻜﻦ ﺗﺄﺧﺬ ﻣﻦ ﺷﻌﺮﻙ ﻭﺃﻇﻔﺎﺭﻙ ﻭﺗﻘﺺ ﺷﺎﺭﺑﻚ ﻭﺗﺤﻠﻖ ﻋﺎﻧﺘﻚ ﻓﺘﻠﻚ ﺗﻤﺎﻡ ﺃﺿﺤﻴﺘﻚ ﻋﻨﺪ ﺍﻟﻠﻪ ﻋﺰﻭﺟﻞ অনুবাদঃ হযরত আব্দুল্লাহ ইবনে আমর ইবনে আস রা. থেকে বর্ণিত, রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেন,আমার প্রতি আযহার (১০ই যিলহজ্ব) দিন ঈদ করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে, যাকে আল্লাহ এই উম্মতের জন্য (ঈদ হিসেবে) নির্ধারণ করেছেন। তখন এক ব্যক্তি জিজ্ঞাসা করে, হে আল্লাহর রাসূল! আপনি বলুন, (যদি আমার কুরবানীর পশু কিনার সামর্থ না থাকে) কিন্তু আমার কাছে এমন উট বা বকরী থাকে-যার দুধ পান করা বা মাল বহন করার জন্য তা প্রতিপালন করি। আমি কি তা কুরবানী করতে পারি? তিনি (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) বললেন, না। বরং তুমি তোমার মাথার চুল, নখ, গোঁফ কেটে ফেল এবং নাভির নীচের চুল পরিষ্কার কর। এ-ই আল্লাহর নিকট তোমার কুরবানী (সুনানে আবু দাউদ, হাদীস নং-২৭৪৯,২য় খন্ড ৩৮৫ পৃষ্ঠা; সুনানে নাসাঈ হাদীস নং-৪৩৭৭, ২ খ. ১৭৯ পৃ.; ত্বহাবী শরীফ, ২ খ. ৩০৫ পৃ.; ইলাউস সুনান, ১২ খ. ২৬৮ পৃ.
জিলহজ মাসের প্রথম ১০ দিনের ফজিলত

 



সর্বশেষ সংবাদ
ঝালকাঠিতে সাংবাদিকের নামে মিথ্যা ধর্ষন মামলার অভিযোগ রিফাত হত্যা মামলার আরেক আসামির আত্নসমর্পন রিফাত হত্যাকাণ্ড: আরও ৪ আসামির আত্মসমর্পণ পাথরঘাটায় কোস্টগার্ড ২০মণ হরিণের মাংস জব্দ-আটক ১ বরগুনায় জাতীয় জন্ম নিবন্ধন দিবস-২০১৯ পালন ওষুধ ছাড়াই পেট থেকে যেভাবে চিরতরে দূর করবেন গ্যাস রিফাত হত্যা: পলাতক ৮ আসামির মালামাল ক্রোকের নির্দেশ বরগুনার গর্ব, ইলিশের স্বর্গ, দেশে প্রথমবারের মত বরগুনায় ইলিশ উৎসব নেছারাবাদ(স্বরূপকাঠী) দুর্ধর্ষ ডাকাতির পর ডাকাত সর্দারসহ ৬ ডাকাত গ্রেফতার বরগুনার সংবাদ প্রতিদিন২৪ এর নিজস্ব প্রতিনিধি আল মামুন(রুবেল) সড়ক দূর্ঘটনায় মৃত্যু,সংবাদ প্রতিদিন২৪.কম এর গভীর শোক প্রকাশ