• slide news
  • »
  • বরগুনায় প্রধান শিক্ষকের সহযোগীতায় সহকারী শিক্ষককে মারধরের অভিযোগ

বরগুনায় প্রধান শিক্ষকের সহযোগীতায় সহকারী শিক্ষককে মারধরের অভিযোগ

প্রকাশ : মার্চ ১৫, ২০২০, ৩:১৯ অপরাহ্ণ

মোঃ আসাদুল হক সবুজ, বরগুনা জেলা প্রতিনিধিঃবরগুনা সদর উপজেলার ২নং গৌরিচন্না ইউনিয়নের ধূপতি এলাকার মনসাতলী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মোঃ গোলাম মোস্তফাকে ওই একই স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা মোসাঃ শামসুন্নাহার মুনমুনের সহযোগিতায় অমানবিকভাবে ছাত্র-ছাত্রীদের সামনে প্রকাশ্য দিবালোকে মারধরসহ লাঞ্ছিত করার অভিযোগ উঠেছে। ভুক্তভোগী সহকারি শিক্ষক গোলাম মোস্তফা বর্তমানে বরগুনা সরকারি জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। ঘটনাস্থলে গিয়ে জানাগেছে, সঠিকভাবে বিদ্যালয় পরিচালনা করাকে কেন্দ্র করে এ মারধরের ঘটনা ঘটে। স্থানীয় জনসাধারণ ও কোমলমতি ছাত্র-ছাত্রীদের অভিভাবকবৃন্দ বলেন, সহকারী শিক্ষক মোঃ গোলাম মোস্তফা একজন ভালো মানুষ। তিনি ছাত্র-ছাত্রীদের যত্নের সাথে শ্রেণিকক্ষে পাঠদান করেন। প্রধান শিক্ষিকা মোসাঃ শামসুন্নাহার মুনমুন প্রতিদিন দুপুর ১২ টায় স্কুলে আসেন এবং এক টায় চলে যায়। তিনি সঠিকভাবে স্কুলের খোঁজ খবর না রেখে সরকারি বেতন তুলে নেন। এ বিষয়ে সহকারী শিক্ষক গোলাম মোস্তফা প্রতিবাদ করলে প্রধান শিক্ষিকা মোস্তফার বদলির ব্যবস্থা করেন। সহকারি শিক্ষক গোলাম মোস্তফা এ বদলির বিষয় হাইকোর্টে আপিল করেন এবং হাইকোর্ট তার আপিলের পক্ষে রুল জারি করে ওই স্কুলে তার কর্মস্থল পুনরায় বহাল রাখেন। এ কারণেই প্রধান
শিক্ষিকা শামসুন্নাহার মুনমুন ক্ষিপ্ত হয়ে স্থানীয় সন্ত্রাসী মোহাম্মদ জাকির খলিফা, মোহাম্মদ আরাফাত খলিফা, মোহাম্মদ বেল্লাল সহ আরও ৩/৪ জন ভাড়াটে সন্ত্রাসী সহযোগিতায় স্কুল চলাকালীন সময় সহকারি শিক্ষক গোলাম মোস্তফার উপরে চড়াও হয়ে প্রকাশ্য দিবালোকে কোমলমতি ছোট ছোট ছাত্র-ছাত্রীদের সামনে বাসের লাঠি, জিআই পাইপ ও ইট দিয়ে দুই দফায় মারধর করেন। এক পর্যায়ে সহকারী শিক্ষক মোঃ গোলাম মোস্তফা সন্ত্রাসীদের মারধরের ফলে অজ্ঞান হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। এসময় স্থানীয় জনতা ও শিক্ষক গোলাম মোস্তফার স্ত্রীর সহযোগিতায় মোস্তফাকে উদ্ধার করে বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে জরুরী বিভাগে ভর্তি করান। বর্তমানে সহকারি শিক্ষক গোলাম মোস্তফা বরগুনা জেনারেল হাসপাতালের সার্জারি বিভাগের ২৬নং বেডে চিকিৎসাধীন আছেন। সহকারী শিক্ষক গোলাম মোস্তফার উপরে সন্ত্রাসী হামলায় ছোট ছোট কোমলমতি ছাত্র-ছাত্রীগণ ভয় পেয়ে গতকাল শনিবার কোন ছাত্র-ছাত্রী স্কুলে আসেনি। স্কুলের আরেক জন সহকারী শিক্ষিকা শাহানাজ আক্তার এর নিকট ছাত্র-ছাত্রী স্কুলে না আসার বিষয় জানতে চাইলে তিনি বলেন সহকারী শিক্ষক মোঃ গোলাম মোস্তফার উপরে অতর্কিত সন্ত্রাসী হামলার কারণে ছাত্রছাত্রীরা ভয় পেয়ে স্কুলে আসে নাই। সহকারী শিক্ষক গোলাম মোস্তফার উপরে সন্ত্রাসী হামলার বিষয়ে জানার জন্য ধূপতি মনসাতলী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা মোসাঃ শামসুন্নাহার মুনমুনের সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ যোগাযোগ করার চেষ্টা করলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি। স্থানীয় জনসাধারণ ও ছাত্র-ছাত্রীদের অভিভাবকবৃন্দ প্রধান শিক্ষিকার অপসারণ ও সহকারী শিক্ষক মোঃ গোলাম মোস্তফার উপর সন্ত্রাসী হামলার দৃষ্টান্তমূলক বিচারের দাবি জানান। এ সংবাদ সংগ্রহকালে ছাত্র-ছাত্রীদের অভিভাবকবৃন্দ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও শিক্ষামন্ত্রীর নিকট সহকারী শিক্ষক গোলাম মোস্তফার উপরে বিদ্যালয় চলাকালীন প্রকাশ্য দিবালোকে সন্ত্রাসী হামলার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেন। এ ঘটনায় বরগুনা থানায় মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন আহত মাস্টার মোস্তফা। তাছাড়া যতদিনে প্রধান শিক্ষক বদলী না হবে ততদিনে কোনো শিক্ষার্থী স্কুলে আসবেনা বলেও জানাগেছে। এ ব্যাপারে এলাকাবাসী মানববন্ধনের জন্য আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। এ ব্যাপারে বরগুনা জেলা প্রাইমারি শিক্ষা কর্মকর্তা এমএম মিজানুর রহমানের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা কালে তাকে পাওয়া যায়নি। কারন, শনিবার সরকারি ছুটির দিন।

 



সর্বশেষ সংবাদ
স্বরূপকাঠীর বিনায়েকপুর মিলন দাসের হামলায় মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে পলাশ দাস, আটক-১ বরগুনায় ডিজিটাল সুরক্ষা আইনের মামলায় দুই সাংবাদিকসহ ৪জন গ্রেফতার অসহায় হতদরিদ্র মাঝে ত্রাণ সহায়তা করেন,স্বরূপকাঠী পৌর যুবলীগ সভাপতি শিশির কর্মকার স্বরূপকাঠীতে পিপলস কেয়ার ফাউন্ডেশনের উদ্যেগে লিফলেট ও মাস্ক বিতরণ বিদেশফেরত প্রত্যেক যাত্রীকে পুলিশে হস্তান্তরে নির্দেশ ভরদুপুরে বরিশালের আকাশে অদ্ভুত বলয় ! বেঁচে থাকলে বঙ্গবন্ধুর বয়স হত ১০০ বছর সাংবাদিক নির্যাতনকারী ডিবির সেই এসআইকে বদলী অন্যায়ভাবে সাংবাদিক গ্রেফতার, প্রত্যাহার হতে পারে কুড়িগ্রামের সেই ডিসি বরগুনায় প্রধান শিক্ষকের সহযোগীতায় সহকারী শিক্ষককে মারধরের অভিযোগ