সংবাদ প্রতিদিন#

প্রায় বিশ বছর ধরে বন্ধ হয়ে আছে পিরোজপুরের নেছারাবাদ(স্বরূপকাঠী) উপজেলার সন্ধা নদীর একমাত্র ফেরিচলাচল। ফলে ঝুকি নিয়ে ট্রলারের মাধ্যামে পারাপার করছে ১২টি ইউনিয়েনর তিন লক্ষাধিক মানুষ । স্থবির হয়ে পরেছে উপজেলার পৌরসভা ও বিসিক শিল্পনগরির ব্যাবসা বানিজ্য সহ বিভিন্ন কার্যক্রম। তবে জেলা প্রশাসন বলছে কাঙ্খিত যাত্রী না থাকায় ফেরিচলাচল বন্ধ করতে বাধ্য হয়েছেন তারা।
তাই ঝুকি নিয়ে প্রতিদিন পারাপার হচ্ছে পিরোজপুরে সন্ধা নদীর হাজার হাজার যাত্রী।

এলাকাবাসী ও শিক্ষার্থীদের কাছে জানাযায়, কোন উপায় না থাকায় ঝুকি থাকার পরও এপার থেকে ওপারে যেতে হচ্ছে স্কুল কলেজের হাজার হাজার শিক্ষার্থীদের। এ এলাকার মানুষের নিরাপদ ও উন্নত যোগাযোগ ব্যাবস্থার কথা চিন্তা করে ১৯৮৭ সনে ফেরিচলাচলের ব্যাবস্থা করেছিলো জেলা সড়ক ও জনপদ বিভাগ (সওজ)। কিন্ত উদ্ধোধনের ১৫ বছরের মাথায় ২০০০ সনে যাত্রী সংকটের অযুহাতে হঠাৎ বন্ধ হয়ে যায় ফেরিটি । এরপর ২০ বছর পেড়িয়ে গেলেও আজো চালু হয়নি জেলা শহরের সাথে যোগাযোগের একমাত্র মাধ্যম সন্ধা নদীর ফেরি । নদী বেষ্টিত এ উপজেলার মিয়ারহাট বাজারের একাংশে রয়েছে ০৬ টি ইউনিয়ন আর অপর পক্ষে রয়েছে ৪টি ইউনিয়ন যা সন্ধা ও কালিগঙ্গা নদী দিখন্ডিত করেছে । আর এ কারনে ভারী যানবাহন যেতে পারছেনা বাকি ৬ টি ইউনিয়নে ।

এদিকে পিরোজপুর জেলা প্রশাসক আবু আলী মো.সাজ্জাদ হোসেন জানান, যাত্রী ও এলাকাবাসীর দাবির প্রেক্ষিতে আগামী কয়েক মাসের মধ্য এ রুটে ফেরি চালুর কথা। আর এলাকাবাসীর চাওয়া বিলম্ব না করে শীগ্র যেন ফেরিটি চালু করা হয়।